বিক্ষোভে উত্তাল দেশের রাজপথ


Sarsa Barta প্রকাশের সময় : জুন ১১, ২০২২, ৭:২৯ পূর্বাহ্ণ /
বিক্ষোভে উত্তাল দেশের রাজপথ

ভারতে মহানবী (সা.) ও তার সহধর্মিণীকে নিয়ে কটূক্তির প্রতিবাদে রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে বিক্ষোভে ফেটে পড়েছেন নবীপ্রেমিক মুসলিম জনতা। বিক্ষুব্ধ জনতা ভারতের মোদি সরকারকে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, ভারত থেকে মুসলিম উৎখাতের ষড়যন্ত্র সফল হবে না। অনতিবিলম্বে নবী (সা.) ও তার সহধর্মিণীকে নিয়ে কটূক্তিকারী কুলাঙ্গারদের গ্রেফতারপূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিন। তারা মহানবী (সা.) শানে কটূক্তির প্রতিবাদে অবিলম্বে জাতীয় সংসদে নিন্দা প্রস্তাব আনার দাবি জানিয়েছেন। ভারতীয় পণ্য বয়কটের দাবি তোলা হয়।

মহানবী (সা.)-কে নিয়ে ঔদ্ধত্যপূর্ণ মন্তব্যের প্রতিবাদে আগামী ১৬ জুন ঢাকাস্থ ভারতীয় দূতাবাস ঘেরাও ও স্মারকলিপি পেশ করার কর্মসূচি ঘোষণা করেছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ। দূতাবাস ঘেরাও কর্মসূচিতে নেতৃত্ব দিবেন দলের আমির মুফতি সৈয়দ মোহাম্মদ রেজাউল করিম পীর সাহেব চরমোনাই। ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ভারতে মহানবী (সা.)-কে নিয়ে কটূক্তির প্রতিবাদে গতকাল বাদ জুমা বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের উত্তর গেটে বিশাল মিছিলপূর্ব বিক্ষোভ সমাবেশে এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন দলের সিনিয়র নায়েবে আমির মুফতি সৈয়দ মোহাম্মদ ফয়জুল করিম।

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ : বায়তুল মোকাররমে ইসলামী আন্দোলন আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মুফতি সৈয়দ মোহাম্মদ ফয়জুল করিম বলেন, ভারত দেশটি থেকে মুসলমান উৎখাতের ষড়যন্ত্র করছে। সুদীর্ঘ ৭৫০ বছর মুসলমানরা ভারত শাসন করেছে। এই দীর্ঘ শাসনামলে মুসলমানরা কোনো হিন্দুর ওপর জুলুম নির্যাতন করেনি। নবী (সা.) ভালোবাসায় আমরা রাজপথে নেমে এসেছি। রাসূল (সা.) গোটা মাখলুখাতের জন্য রহমতস্বরূপ। গোটা বিশ্বের মুসলমানরা জাগ্রত হয়েছে। বর্তমান সরকার ভারতের গোলামির জন্য পাগল। আর এদেশের মুসলমানরা নবীর (সা.) জন্য পাগল। সরকারের নীরবতায় ক্ষোভ প্রকাশ করে অবিলম্বে জাতীয় সংসদে নিন্দা প্রস্তাব পাস করার জোর দাবি জানান। তিনি ভারতীয় দূতাবাস ঘেরাও কর্মসূচি সফল করার আহ্বান জানান।

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা মহানগরী আয়োজিত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন মহানগর সভাপতি প্রিন্সিপাল ফজলে বারী মাসউদ। এতে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য অধ্যাপক আশরাফ আলী আকন্দ, অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান, দলের মহাসচিব প্রিন্সিপাল হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ, মাওলানা আলহাজ আমিনুল ইসলাম মাওলানা গাজী আতাউর রহমান, মাওলানা ইমতিয়াজ আলম, মাওলানা আহমদ আব্দুল কাইয়ূম, অধ্যাপক সৈয়দ বেলায়েত হোসেন, মাওলানা নেছার উদ্দিন, আলহাজ মো. শাহাদাত হোসেন ও মো. শহিদুল ইসলাম রিয়াদ। পরে নগরীতে বিশাল মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি কাকরাইল মোড়ে গেলে পুলিশি বাধার মুখে তা’ শেষ হয়।

জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ : জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের নেতৃবৃন্দ বলেন, ভারতের বিজেপি সরকার উগ্র হিন্দুত্ববাদ প্রতিষ্ঠার জন্য বার বার নানামুখী চক্রান্ত চালিয়ে যাচ্ছে। কোথাও মুসলিম হত্যা, কোথাও মসজিদ ধ্বংস, কোথাও জয়শ্রীরাম সেøাগানে বাধ্য করা, কোথাও হিযাব নিষিদ্ধ করা, কখনো কোরআন অবমাননা করা, আর কখনো মানবকুলের মুক্তিদূত হযরত মুহাম্মাদ (সা.)-এর ব্যাপারে নূপুর শর্মা ও নবীন কুমার জিন্দালদের দ্বারা ধৃষ্টতাপূর্ণ মন্তব্য করানো, এসবই বিজেপির সম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করে উগ্র হিন্দুত্ববাদ প্রতিষ্ঠার সুগভীর ষড়যন্ত্র। এ চক্রান্তের পরিণাম শুভ হবে না।

তেজগাও রহিম মেটাল জামে মসজিদ : মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)-কে নিয়ে ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির দুই নেতা নেত্রীর অবমাননাকর মন্তব্যের জেরে রাজধানীর তেজগাঁও শিল্প এলাকায় বিক্ষোভ সমাবেশ হয়েছে। বিক্ষোভ সমাবেশে উপস্থিত মুসল্লিরা দাবি তুলেছেন বাংলাদেশের পক্ষ থেকে রাষ্ট্রীয়ভাবে প্রতিবাদের জানানোর। অন্যথায় পরবর্তী সময়ে আরো বড় সমাবেশ আয়োজনের হুঁশিয়ারি দেন বক্তারা। শুক্রবার জুমার নামাজ শেষে রাজধানীর রহিম মেটাল জামে মসজিদ-সংলগ্ন সড়কে এ বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়। এ মসজিদটির আয়োজিত সমাবেশে যোগ দেন আশপাশের কয়েকটি মসজিদের মুসল্লিরা।

বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন ঢাকা মহানগর উত্তর: বাদ জুমা নগরীর মহাখালী গুলশান হাফেজ্জী হুজুর (রহ.) খানকাহ কার্যালয়ে বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন ঢাকা মহানগর উত্তরের উদ্যোগে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল বের করা হয়। হাফেজ মাওলানা ইব্রাহিম বিন আলীর সভাপতিত্বে মিছিলে নেতৃত্ব দেন দলের আমির মাওলানা আবু জাফর কাসেমী।

খেলাফত মজলিস : খেলাফত মজলিসের মহাসচিব ড. আহমদ আবদুল কাদের বলেছেন, ভারতের শাসকদলের নেতা-নেত্রীরা মহানবী (সা.) কে হেয় করে যে বক্তব্য দিয়েছে তা বিশ্বের ২০০ কোটি মুসলমানের হৃদয়ে আঘাত হেনেছে। মহানবী (সা.) কে অবমাননার জন্য ভারতকে রাষ্ট্রীয়ভাবে বিশ্ব মুসলিমের কাছে ক্ষমা চাইতে হবে। খেলাফত মজলিস ঢাকা মহানগরী আয়োজিত বিক্ষিাভ মিছিল পরবর্তী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

ইসলামী ঐক্য আন্দোলন : ইসলামী ঐক্য আন্দোলন ঢাকা মহানগরীর বিক্ষোভ মিছিল পরবর্তী সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেছেন, বিজেপি নেতা নেত্রীর বক্তব্য চরম ধৃষ্টতাপূর্ণ। তারা সারাবিশ্বের ২০০ কোটি মুসলমানের হৃদয়ে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে। অবিলম্বে পাপাচার নরকের এই কীটদের গ্রেফতার করে শাস্তির আওতায় আনতে হবে। এতে আরো বক্তব্য রাখেন ইসলামী ঐক্য আন্দোলনের নায়েবে আমীর মাওলানা মুহাম্মাদ রুহুল আমীন,সেক্রেটারি জেনারেল তারেকুল হাসান, মাওলানা কাজী আবু বকর সিদ্দিক,মাওলানা ফারুক আহমাদ।

জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ : জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব শায়খুল হাদিস হাফেজ মাওলানা ড. গোলাম মহিউদ্দিন ইকরাম মিছিল পূর্ব সমাবেশে বলেন, সমস্ত মুসলমান প্রিয় নবী মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে নিজের প্রাণের চেয়ে বেশি ভালোবাসেন। প্রিয়নবী (সা.) সম্পর্কে তাদের এই কটূক্তি আমাদের হৃদয়ে রক্তক্ষরণ করেছে। ভারতের পণ্য বয়কট করে অর্থনৈতিকভাবে তাদের প্রতিবাদ করা আমাদের ঈমানের দাবি।

জাতীয় ইমাম সমাজ বাংলাদেশ : বাদ জুমা জাতীয় ইমাম সমাজ বাংলাদেশের উদ্যোগে চকবাজার শাহী মসজিদ চত্বরে বিক্ষোভ ভারতে মুহাম্মাদুর রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের অবমাননার প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সমাবেশে মহাসচিব মুফতী মিনহাজ উদ্দিন তার বক্তব্যে বলেন, নবী মুহাম্মাদুর রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের ইজ্জতে আঘাতকারীদের সাথে বন্ধুত্ব এদেশের জনগণ মেনে নেবে না। সরকারের উচিত অনতিবিলম্বে মহানবীর বিরুদ্ধে কটূক্তিকারীদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রীয়ভাবে প্রতিবাদ জানানো এবং তাদের শাস্তির দাবি করা।

ড. এনায়েতুল্লাহ আব্বাসী : জৈনপুরী পীর সাহেব ড. এনায়েতুল্লাহ আব্বাসী বলেন, বাংলাদেশ সরকারের প্রতি স্পষ্ট বার্তা বিদেশীদের সাথে দর কষাকষি করে ক্ষমতায় থাকা যাবে না। অনতিবিলম্বে ভারতীয় রাষ্ট্রদূতকে তলব করে শোকজ করুন এবং চলমান সংসদ অধিবেশনে নিন্দা প্রস্তাব এনে রাষ্ট্রীয়ভাবে ঘৃণা ও প্রতিবাদ করুন। গতকাল নারায়ণগঞ্জের আব্বাসী মঞ্জিল জৌনপুরী দরবার শরীফ প্রাঙ্গণে প্রতিবাদ সমাবেশে তিনি একথা বলেন। সমাবেশে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, মাওলানা ক্বারী ওবাইদুল্লাহ আব্বাসী, মাওলানা আবদুর রহীম, মাওলানা বরাতুল ইসলাম, মাওলানা আবদুল্লাহ আল মামুন ও মাওলানা মুহাম্মাদ আরিফুর রহমান।

বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর : খেলাফত আন্দোলন নারায়ণগঞ্জ জেলার আমির আলহজ আতিকুর রহমান নান্নু মুন্সির নেতৃত্বে বৃহস্পতিবার চিটাগাং রোড থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। এতে সংক্ষিপ্ত প্রতিবাদ সভায় নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে মহানবী (সা.) কে নিয়ে কটূক্তির প্রতিবাদে জাতীয় সংসদে নিন্দা প্রস্তাব আনার দাবি জানানো হয়।

সাভারের উলামা মাশায়েখ ও সর্বস্তরের তৌহিদী জনতার উদ্যোগে বাদ জুমা সাভার পৌরস্থ সিটি সেন্টারের সামনে মিছিল পূর্ব প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। প্রবীণ আলেমেদ্বীন ব্যাংক কলোনি মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা আবদুল্লাহর সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তারা বলেন, ভারতের উগ্রবাদী বিজেপি গোষ্ঠী এখন দেশটিতে ইসলামকে বিশেষভাবে টার্গেট করেছে। সেই ধারাবাহিকতায় ক্ষমতাসীন বিজেপি মহানবী (সা.) কে নিয়ে কটূক্তিপূর্ণ মন্তব্য করে মুসলমানদের হৃদয়ে আঘাত হেনেছে। পরে বিভিন্ন সড়কে বিশাল মিছিল বের করা হয়। এছাড়া নগরীর আমিন বাজারের সর্বস্তরের আলেম ওলামাদের উদ্যোগে বাদ জুমা বিক্ষোভ-সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন মুফতি আব্দুর রহিম কাসেমী।

চট্টগ্রাম ব্যুরো জানায়, বারো আউলিয়ার পুণ্যভূমি চট্টগ্রাগে বাদ জুমা আন্দরকিল্লা শাহী জামে মসজিদ, জয়িমাতুল ফালাহ মসজিদসহ নগরীর মসজিদগুলো থেকে মিছিল বের করা হয়। এতে সাধারণ মুসল্লিরা প্রতিবাদ বিক্ষোভে ফেটে পড়েন। ইসলামি আন্দোলন, আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাত, গাউছিয়া কমিটি, মুসল্লি কমিটিসহ নানা ব্যানারে আয়োজিত প্রতিবাদ কর্মসূচিতে মানুষের ঢল নামে।

কক্সবাজার ব্যুরো জানায়, মিছিলে মিছিলে গতকাল উত্তাল ছিল কক্সবাজার। শহর থেকে গ্রাম পর্যন্ত জেলার ৯ উপজেলায় বাদ জুমা প্রায় সকল মসজিদ থেকে প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল বের করে। এতে সর্বস্তরের হাজার হাজার নবী প্রেমিক মুসল্লীরা অংশ গ্রহণ করেন।

সিলেট ব্যুরো জানায়, সারাদেশের ন্যায় উত্তাল হয়ে উঠেছে সিলেট। সিলেটের আলেম-ওলামাসহ শত শত নবীপ্রেমী জনতার বিক্ষোভে উত্তাপ ছড়িয়েছে সিলেটের রাজপথ।

খুলনা ব্যুরো জানায়, ভারতের এই ঘটনা বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর হৃদয়ে রক্তক্ষরণ ঘটিয়েছে। এমন জঘন্যতম অন্যায় কোনোভাবেই মেনে নেয়া যায় না। বিশ্বনবীর অবমাননার ঘটনা অসভ্যতাকেও হার মানিয়েছে। ভারত সরকারকে এর চরম মূল্য দিতে হবে।

রাজশাহী ব্যুরো জানায়, রাজশাহীতে জুমা’র নামাজের পর তৌহিদী জনতা ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশসহ বিভিন্ন সংগঠন রাজশাহী মহানগরীর সাহেববাজার জিরো পয়েন্টে থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করে। বিভিন্ন সড়ক প্রদিক্ষণ শেষে মিছিল জিরো পয়েন্ট সমাবেশে মিলিত হয়।

দিনাজপুর ব্যুরো জানায়, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ দিনাজপুর জেলার উদ্যোগে মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। বাদ জুমা দিনাজপুর ইনস্টিটিউট মাঠ হতে এক বিশাল বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে মডার্ন মোড় হয়ে পুনরায় দিনাজপুর ইনস্টিটিউট মাঠে এসে শেষ হয়।

বগুড়া ব্যুরো জানায়, ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশ বগুড়া জেলা শাখার উদ্দ্যোগে বাদ জুমা বগুড়া কেন্দ্রীয় মসজিদ হতে এক বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। ঐতিহাসিক সাতমাথায় মাওলানা আ.ন.ম মামুনুর রশিদ সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বরিশাল ব্যুরো জানায়, বরিশালে ইসালামী আন্দোলন বাংলাদেশ’র মহানগর কমিটির উদ্যোগে জুমা নামাজের পরেই মহনগরীসহ আসে পাশের বিভিন্ন এলাকা থেকে বিপুল সংখ্যক মুসুল্লী খন্ড খন্ড মিছিল নিয়ে টাউন হল প্রাঙ্গনে জমায়েত হয়।

রিপোর্টার, কুষ্টিয়া থেকে জানান, কুষ্টিয়া জেলায় ইসলামী আন্দোলন ছাত্র মজলিসসহ তৌহিদী জনতার ব্যানারে বিভিন্ন ইসলামী সংগঠন প্রতিবাদ মিছিল ও সমাবেশের আয়োজন করে।

স্টাফ রিপোর্টার, কুমিল্লা থেকে জানান, কুমিল্লায় কর্মসূচি পালন করে বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান, খানেকা, মাদরাসা ও ধর্মপ্রান মুসলমানগণ। জুম্মার নামাজের পর কুমিল্লা টাউন হল মাঠে শহর ও শহরতলীর বিভিন্ন স্থান থেকে ধর্মপ্রাণ মুসল্লি, খন্ড খন্ড মিছিল নিয়ে টাউনহল মাঠে সমবেত হয়।

স্টাফ রিপোর্টার, চাঁদপুর থেকে জানান, চাঁদপুর জেলা কওমি সংগঠন এর পক্ষ থেকে মিছিল বের করা হয়। বাদ জুমআ শহরের শপথ চত্বরে বিক্ষোভ সমাবেশ সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সিনিয়র সহ-সভাপতি মুফতি সিরাজুল ইসলাম

স্টাফ রিপোর্টার, মাগুরা থেকে জানান, মাগুরায় বিক্ষোভ করেছে মাগুরার ইসলাম প্রিয় তৌহিদি জনতা। জুম্মার নামাজ শেষে মাগুরা নোমানী ময়দান থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করে সারা শহর প্রদক্ষিণ করে।

স্টাফ রিপোর্টার, নরসিংদী থেকে জানান, নরসিংদীতে তানযীমুল মাদারিসিল কাওমিয়া নরসিংদী ও নবী প্রেমিক তৌহিদি জনতা বিক্ষোভ মিছিল করেছে। জুম্মার নামাজের পর নরসিংদী শহরের পৌরসভা চত্বরে পূর্বনির্ধারিত কর্মসূচি অনুযায়ী খন্ড খন্ড মিছিল নিয়ে সমবেত হয়।

নারায়ণগঞ্জ জেলা সংবাদদাতা জানান, সোনারগাঁও প্রেস ক্লাবের সামনে গতকাল সকালে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। শায়খ আবু তাওয়ামা সংসদ প্রতিবাদ সভার আয়োজন করে। প্রতিবাদ সভায় শায়খ আবু তাওয়ামা সংসদের সভাপতি মাওলানা শফিকুল ইসলাম জামীরসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

মুন্সীগঞ্জ জেলা সংবাদদাতা জানান, মুন্সীগঞ্জে জুম্মার নামাজ শেষে তৌহিদী জনতা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্ত্বরে মিছিল করেছে। ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর সিনিয়র সহ সভাপতি মুফতি আবদুল্লাহ তাহের কাসেমীর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন সোহরাব হোসেন ফারুকি।

গাজীপুর জেলা সংবাদদাতা জানান, গাজীপুরের টঙ্গীতে লাখো মুসল্লির বিক্ষোভ সমাবেশে তিন দফা দাবি ঘোষণা করেছেন গাজীপুর জেলা হেফাজতে ইসলামীর আমীর মুফতি মাসউদুল করীম। আগামী বুধবারের মধ্যে এসব দাবি পূরণ না হলে রাজধানীর প্রবেশ মুখ টঙ্গীতে দশ লাখ লোকের সমাবেশ ঘটিয়ে টঙ্গীকে সারাদেশ থেকে বিচ্ছিন্ন করা হবে বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সংবাদদাতা জানান, ইসলামী ফ্রন্ট, যুব ও ছাত্র সেনা জেলা শাখা স্থানীয় প্রেসক্লাবের সামনে এই মানববন্ধনের আয়োজন করা হয। এতে বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট জেলা সভাপতি নাজীম উদ্দিন আল কাদেরীর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক কাজী ইসলাম উদ্দিন দুলালসহ প্রমুখ। মানববন্ধন শেষে বিশ^ মুসলিম উম্মার শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করে বিশেষ দোয়া করা হয়।

ফরিদপুর জেলা সংবাদদাতা জানান, ফরিদপুরে বাংলাদেশ ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলনের উদ্যোগে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ফরিদপুর জেলা শাখার সভাপতি মুফতি মোস্তফা কামাল এর সভাপতিত্বে ফরিদপুর শহরস্থ জনতার ব্যাংকের মোড় হতে প্রেসক্লাবের সামনে বিক্ষোভ হয়।

জয়পুরহাট জেলা সংবাদদাতা জানান, জয়পুরহাটে বিক্ষোভ মিছিল করেছে ওলামা পরিষদ। জুমার নামাজ শেষে জয়পুরহাট ওলামা পরিষদের আয়োজনে জেলা শহরের বিভিন্ন মসজিদ থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, জয়পুরহাট ওলামা পরিষদের সভাপতি হাফেজ মাওলানা মো. আল-আমিন, সহসভাপতি আবু জাফরসহ প্রমুখ।

শেরপুর জেলা সংবাদদাতা জানান, জেলার বিভিন্ন মসজিদে জুম্মার নামাজের পর মুসল্লিরা বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে শেরপুর পৌর কেন্দ্রীয় ঈদগাঁ মাঠে সমবেত হয় ।

নাটোর জেলা সংবাদদাতা জানান, ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলনের আয়োজনে জুম্মা নামাজের পর নাটোর কেন্দ্রীয় মসজিদের সামনে এই বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে ঈমান আকীদা সংরক্ষণ পরিষদের সভাপতি মাওলানা মুনিরুজ্জামানের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন ঈমান আকীদা সংরক্ষণ পরিষদের সহ-সভাপতি হাফেজ মাওলানা আবুল কালাম আজাদসহ প্রমুখ।

পটুয়াখালী জেলা সংবাদদাতা জানান, বাদ জুমা পটুয়াখালী জেলা ইমাম পরিষদের আহবানে স্থানীয় শহীদ আলাউদ্দিন শিশু পার্কে এক বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। ইমাম পরিষদের আহবানে আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে জুমার নামাজ শেষে শহরের বিভিন্ন মসজিদ থেকে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা স্থানীয় শহীদ আলাউদ্দিন শিশুপার্কে জড়ো হন।

পিরোজপুর জেলা সংবাদদাতা জানান, জুমার নামাজের পর বিভিন্ন মসজিদের সহস্রাধিক মুসল্লি এ কর্মসূচি পালন করে। কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে মসজিদের এসে শেষ হয়।

ভোলা জেলা সংবাদদাতা জানান, ভোলা জেলায় সমাবেশ করেছেন ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা। বাংলাদেশ ইসলামী আন্দোলন ভোলা শাখার ব্যানারে শুক্রবার জুম্মার নামাজের পর থেকে আছরের নামাজের আগ পর্যন্ত চলে এই বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ।

সুনামগঞ্জ জেলা সংবাদদাতা জানান, সুনামগঞ্জ ইয়াম মোয়াজ্জিন পরিষদের উদ্যোগে বাদ জুম্মা শহরের ট্রাফিক পয়েন্টে বিশাল প্রতিবাদ সমাবেশে সভাপতিত্ব করে ইমাম মোয়াজ্জিন পরিষদের সভাপতি মাওলানা মুজিবুর রহমান। সমাবেশস্থলে মিলিত হাজারো ধর্মপ্রাণ মুসল্লি।

ফেনী জেলা সংবাদদাতা জানান, ইসলামী আন্দোলন ফেনী জেলা শাখার উদ্যোগে আয়োজিত প্রতিবাদ সভা বাদ জুমা শহরের দোয়েল চত্বরে অনুষ্ঠিত হয়েছে। ইসলামী আন্দোলন ফেনী জেলা শাখার সভাপতি মাওলানা নুরুল করীম এর সভাপতিত্বে ও আবদুর রহমান ফরহাদ এর সঞ্চালনায় প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন মাওলানা গাজী এনামুল হক।

বরগুনা জেলা সংবাদদাতা জানান, বরগুনা প্রেসক্লাব চত্ত্বরে বিভিন্ন মসজিদ থেকে মিছিল নিয়ে মুসুল্লিরা সমবেত হয়। বরগুনা কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের পেশ ইমাম খতিব মুফতি মাওলানা গোলাম মাওলা জাহিদের সভাপতিত্বে অনুষ্টিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন মাওলানা হেলাল উদ্দীন ওসমানী।

নেত্রকোনা জেলা সংবাদদাতা জানান, নেত্রকোনায় সমাবেশ করেছে বিক্ষুব্ধ ধর্মপ্রাণ মুসল্লীরা। নেত্রকোনাবাসীর উদ্যোগে বাদ জুম্মা জেলা শহরের বারহাট্টা রোডস্থ জামিয়া মিফতাহুল উলুম মাদরাসা প্রাঙ্গণ থেকে বিক্ষোভ মিছিলটি বের হয়ে প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে মারাসা প্রাঙ্গণে এসে শেষ হয়।

বাগেরহাট জেলা সংবাদদাতা জানান, মোরেলগঞ্জ উপজেলার বৌলপুর বাজারের মুসলিম যুব সমাজের ব্যানারে মিছিল বের করা হয়। বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিন শেষে বৌলপুর বাজার শহীদ মিনারের সামনে এক পথসভায় মিলিত হয়।

ধামরাই (ঢাকা) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, বিশ্ব নবীর অপমান সইবেনারে মুসলমান এ প্রতিপাদ্য নিয়ে ঢাকার ধামরাই পৌর শহর ও ঐতিহ্যবাহী কালামপুর বাজার বাসস্ট্যান্ডে মুসল্লীদের মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। জুমার নামাজের পর শতশত মুসল্লী ও সাধারণ জনগন মানববন্ধনে শামিল হন।

বেলকুচি (সিরাজগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে গতকাল বাদ জুমা সর্বস্তরের মুসল্লীগণ বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। মিছিলটি বেলকুচি সরকারি কলেজ থেকে শুরু হয়ে চালা বাস স্ট্যান্ড বাজার প্রদক্ষিণ করে আবার মিছিলটি বেলকুচি সরকারি কলেজে চলে এসে শেষ হয়।

চাটখিল (নোয়াখালী) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, চাটখিল কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ মাঠে গতকাল সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এসময় বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত নিন্দা না জানানোর কারণেও গভীর দুঃখ ও ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়।

রামগড় (খাগড়াছড়ি) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, রামগড়ে এক বিশাল বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে রামগড়ের সর্বস্তরের ওলামায়ে কেরাম। “রাসুলের অপমানে যদি না কাঁদে তোর মন, মুসলিম নয় মুনাফিক রাসুলের দুষমন” এ শ্লোগানে জুমার নামাজের পর রামগড়ের সর্বস্তরের ওলামায়ে কেন্দ্রীয় মসজিদ থেকে মিছিল বের করে।

ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) উপজেলা সংবাদদাতা, ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। গতকাল বাদ জুমা ঈশ্বরগঞ্জ পরিবার ও জনতার ঈশ্বরগঞ্জ নামের দুটি সামাজিক সংগঠনের উদ্যোগে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

কালিয়াকৈর (গাজীপুর) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, জুম্মার নামাজের পর ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের গাজীপুরের চন্দ্রায় ও ঢাকা-ময়মনসিহ মহাসড়কের গাজীপুরের চান্দনা চৌরাস্তায় আশপাশের বিভিন্ন মসজিদের মুসল্লিরা সমাবেশে জমায়েত হন। এতে দুই মহাসড়কেই প্রায় এক ঘন্টা যানবাহন চলচলা বন্ধ থাকে।

মির্জাগঞ্জ (পটুয়াখালী) উপজেলা সংবাদদাতা, উপজেলার মাধবখালী ইউনিয়নের চৈতা বাজারে জুমার নামাজ শেষে উপজেলা সদরে এবং মজিদবাড়িয়া ইউনিয়নের ভায়াং বাজারে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। তাছাড়া বাংলাদেশে ভারতীয় পণ্য ও টিভি চ্যানেল বন্ধের দাবি জানানো হয় সমাবেশে ।

সাটুরিয়া (মানিকগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, মানিকগঞ্জের সাটুরিয়ায় তাওহিদী জনতার উদ্যোগে সাটুরিয়া বাসষ্টান্ড থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে সটুরিয়া বাজারের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ হয়ে হাসপাতাল সড়ক হয়ে পুনরায় বাস স্ট্যান্ডে গিয়ে শেষ হয়।

সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ বাদ জুম্মা উপজেলা ইমাম ওলামা পরিষদ ও সর্বস্তরের মুসল্লির আয়োজনে বিক্ষোভ মিছিলটি বাহিরগোলা জামে মসজিদ মোড় হতে শুরু হয়ে শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। মিছিলে সাধারণ মুসল্লিরাও অংশ নিয়ে বিক্ষোভ করেন।

ফুলপুর (ময়মনসিংহ) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, ময়মনসিংহের ফুলপুরে জুম্মার নামাজের পর তৌহিদী জনতা ঐক্য পরিষদের ব্যানারে পুরাতন কোর্ট বিল্ডিংয়ের সামনে থেকে মিছিল বের করে। এতে সর্বস্তরের তৌহিদী জনতা অংশ গ্রহণ করেন।

ইবি সংবাদদাতা জানান, (ইবি) সাধারণ শিক্ষার্থীরা নবীকে নিয়ে কটূক্তির প্রতিবাদে রাষ্ট্রীয়ভাবে নিন্দা জানানো ও রাসূল (সা.) কে মানহানী করার শাস্তি মৃত্যুদন্ড জারি করার দাবিতে মানববন্ধন করেছে এসময় নারায়ে তাকবীর ‘আল্লাহ আকবার’ সেøাগানে প্রকম্পিত হয় পুরো ইবি ক্যাম্পাস।

জবি সংবাদদাতা জানান, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা গতকাল জুমার নামাজের পর বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা অনুষদ থেকে নারায়ে তাকবীর স্লোগান দিয়ে বিক্ষোভ মিছিল শুরু করে। ক্যাম্পাসের বিজ্ঞান অনুষদ, ভাস্কর্য চত্বর হয়ে পুরান ঢাকার বাংলাবাজার মোড় প্রদক্ষিণ করে ক্যাম্পাসের প্রধান ফটকে এসে সমাবেশে রূপ নেয়।

মোংলা সংবাদদাতা জানান, জুমা নামাজবাদে নগরীর মসজিদগুলো থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করে শাপলা চত্ত্বরে মিলিত হয়। উত্তাল ছিল বন্দর নগরী মোংলা। উপজেলা ইমাম পরিষদের ব্যানারে আয়োজিত প্রতিবাদ কর্মসূচিতে মানুষের ঢল নামে।

হিলি সংবাদদাতা জানান, দিনাজপুরের হিলি বাসীর আয়োজনে জুম্মার নামাজ শেষে মাঠপাড়া জামে মসজিদ প্রাঙ্গণ থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে মিছিলটি বন্দরের বিভিন্ন প্রদক্ষিণ শেষে শান্তির মোড়ে সমাবেশ করেন।

প্রেস বিজ্ঞপ্তি : নেছারাবাদী হুজুর বলেন ‘আমরা দেশের সরকারের উদ্দেশ্যে বলবো-ইসলাম ও ইসলামের নবী সকলের, তা কোন গোষ্ঠী বা দল-বিশেষের নয়। অতএব, দেশের সাম্প্রদায়িক-সম্প্রীতি রক্ষার পাশাপাশি বাংলার গণ-মানুষের চেতনা ও অনুভূতিকে ব্যক্ত করে ভারত-সরকারের কাছে রাষ্ট্রীয়ভাবে প্রতিবাদ জানানোর আহ্বান করছি।’

%d bloggers like this: