ভারতে ২০২৪ সালের নির্বাচনের পর ৫০ রাজ্য!


Sarsa Barta প্রকাশের সময় : জুন ২৬, ২০২২, ৮:১০ পূর্বাহ্ণ /
ভারতে ২০২৪ সালের নির্বাচনের পর ৫০ রাজ্য!

ভারতে ২০২৪ সালে পরবর্তী সাধারণ নির্বাচনের পর রাজ্যের সংখ্যা ৫০ হবে! সাধারণ কেউ কথাটি বলেননি। বলেছেন কর্নাটক রাজ্যের এক মন্ত্রী।ভারতে বিগত দিনে বহু রাজ্য ভাগ হয়েছে। উত্তরপ্রেশ থেকে আলাদা হয়েছে উত্তরাখণ্ড, মধ্যপ্রদেশ থেকে আলাদা হয়েছে ছত্তিশগড়। কয়েক বছর আগে অন্ধ্রপ্রদেশ থেকে পৃথক হয়েছে তেলাঙ্গানা।

আরো বহু রাজ্যেই পৃথক রাজ্যের দাবি উঠে এসেছে সাম্প্রতিককালে… উত্তরবঙ্গ বা গোরখাল্যান্ডের মতো। এই আবহে বিস্ফোরক দাবি করলেন কর্ণাটকের বিজেপি সরকারের মন্ত্রী উমেশ কাট্টি। কাট্টি দাবি করেন, ২০২৪ সালের লোকসভা নির্বাচনের পর নাকি দেশে ৫০টি রাজ্য হবে।

কর্নাটকের মন্ত্রী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ২০২৪ সালের নির্বাচনের পর দেশে ৫০টি রাজ্য গঠনের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। আমি জানতে পেরেছি যে তিনি এটি নিয়ে চিন্তাভাবনা করছেন।’

কাট্টি আরো দাবি করেন, তার নিজের রাজ্য কর্নাটকও নাকি দুই ভাগে বিভক্ত হবে। তাঁর কথায়, কর্ণাটককে ভেঙে দুটি পৃথক রাজ্য করা উচিত, উত্তরপ্রদেশে ভেঙে চার, মহারাষ্ট্র ভেঙে তিনটি রাজ্য তৈরি করা উচিত।

কাট্টির দাবি, ‘বড় রাজ্যগুলোকে ভাগ করার চিন্তাভাবনা ভালো।’ তার যুক্তি, ‘বছরের পর বছর ধরে জনসংখ্যার বোঝা বেড়েছে। কাট্টি বলেছেন ৬০ বছরে জনসংখ্যা দুই কোটি থেকে বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬.৫ কোটি হয়েছে। এই হারে জনসংখ্যা বৃদ্ধির হলে কিছু সমস্যা হয়।

সব জায়গার উন্নয়ন প্রয়োজন। তাই উত্তর কর্নাটক একটি রাজ্য হওয়া উচিত এবং সেখানে উন্নয়ন হওয়া উচিত। আমরা কন্নড় হিসেবেই বসবাস করব কিন্তু রাজ্য (উত্তর ও দক্ষিণ কর্নাটক) ভাগ হলে কোনো ক্ষতি নেই।’

কাট্টির বিবৃতিতে প্রতিক্রিয়া জানিয়ে, মুখ্যমন্ত্রী বাসবরাজ বোমাই বলেছেন যে উত্তর কর্নাটকে আলাদা রাজ্যের জন্য সরকারী স্তরে কোনো প্রস্তাব নেই। উল্লেখ্য, এর আগেও একাধিকবার রাজ্য ভাগের পক্ষে কথা বলেছেন কাট্টি।

উল্লেখ্য, ভারতে বর্তমানে ২৮টি রাজ্য ও আটটি ইউনিয়ন টেরিটরি রয়েছে।

সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস

%d bloggers like this: