উজানে ভারী বৃষ্টিতে বন্যা বুঝি এলো!


Sarsa Barta প্রকাশের সময় : জুলাই ২০, ২০২২, ৫:৫০ পূর্বাহ্ণ /
উজানে ভারী বৃষ্টিতে বন্যা বুঝি এলো!

রাজধানীসহ দেশের বেশির ভাগ এলাকার আকাশে মেঘের আনাগোনা বেড়েছে। সিলেট ও রংপুর বিভাগে মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টিও শুরু হয়েছে। সামগ্রিকভাবে দেশের বেশির ভাগ এলাকার তাপমাত্রা এক ডিগ্রি সেলসিয়াস কমেছে। তবে রাজধানী ঢাকা ও রাজশাহীতে সামান্য বৃষ্টি হলেও তাপমাত্রা কমেনি, বরং বেড়েছে। ফলে বৃষ্টির সময় কিছুটা স্বস্তি পাওয়া গেলেও পরে ভ্যাপসা গরমের অনুভূতি রয়ে গেছে।

ব্রহ্মপুত্র ও তিস্তা নদীর উজানে ভারতীয় অংশে ভারী বৃষ্টি শুরু হয়েছে। ওই বৃষ্টির পানি আগামীকাল বৃহস্পতি ও শুক্রবারের মধ্যে বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চলের কয়েকটি জেলার নিম্নাঞ্চলে ঢল আকারে আসতে পারে। ওই পানি ক্রমাগত বেড়ে চলতি মাসের শেষে দেশের উত্তরাঞ্চলে আরেক দফা বন্যা দেখা দিতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের পূর্বাভাস বলছে, আগামী কয়েক দিন ধীরে ধীরে বৃষ্টি বাড়তে পারে। রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগে মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টি হতে পারে। এতে সেখানকার তাপমাত্রা কমতে পারে। তবে ঢাকা ও রাজশাহীতে বৃষ্টির সম্ভাবনা কম।

গতকাল বিকেল থেকে রাজধানীর আকাশ কালো করে মেঘ আসে, কয়েকটি এলাকায় অল্প সময়ের জন্য বৃষ্টিও নামে। তবে ঢাকায় মাত্র এক মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। সবচেয়ে বেশি বৃষ্টি হয়েছে পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় ৮৫ মিলিমিটার। চট্টগ্রাম, সিলেট ও রংপুর বিভাগের বিভিন্ন স্থানে ২ থেকে ৫৫ মিলিমিটার পর্যন্ত বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ বজলুর রশীদ বলেন, রাজধানীতে দিনভর তাপমাত্রা বেশি ছিল। ফলে দুপুর ও বিকেলের একপশলা বৃষ্টিতে গরম খুব বেশি কমেনি। তবে আগামী কয়েক দিন দেশের বেশির ভাগ এলাকায় বৃষ্টি বেড়ে গরমের অনুভূতি কমে আসতে পারে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের পর্যবেক্ষণ অনুযায়ী, গতকাল দেশে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল রাজশাহীতে ৩৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। রাজধানীতে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৪ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

সরকারের বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের পূর্বাভাস বলছে, বাংলাদেশের উজানে ভারতীয় অংশেও ভারী বৃষ্টি শুরু হয়েছে। বিশেষ করে আসাম, মেঘালয় ও পশ্চিমবঙ্গে আগামীকাল থেকে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। ফলে ব্রহ্মপুত্র ও তিস্তা অববাহিকায় পানি বেড়ে বিপৎসীমার কাছাকাছি চলে যেতে পারে।

%d bloggers like this: