খায়েস অপূরণ, জালিয়াত আসলামের দরপত্র বাতিল করল কারাকর্তৃপক্ষ


Sarsa Barta প্রকাশের সময় : নভেম্বর ২৩, ২০২২, ১০:৪৯ পূর্বাহ্ণ /
খায়েস অপূরণ, জালিয়াত আসলামের দরপত্র বাতিল করল কারাকর্তৃপক্ষ

খায়েস পূরণ হলো না ফরিদপুর কারাগারে পেঅর্ডার জালিয়াতিতে অভিযুক্ত যশোর জেলরোডের ঠিকাদার আসলাম হোসেনের। অবশেষে তার দরপত্র বাতিল করেছে যশোর কেন্দ্রীয় কারাগার কর্তৃপক্ষ। মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় কারাগারে খাবার সরবরাহের দরপত্র যাচাই বাছাই শেষে আসলাম হোসেনের দরপত্র বাতিল করে আইজি প্রিজন্স বরাবর পাঠানো হয়েছে।

যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারের একাধিক সূত্র বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এদিকে, কয়েক বছর ধরে ঠিকাদারদের জিম্মি করে কারাগারের খাবার সরবরাহের কাজ নিজের দখলে রাখতেন আসলাম। এ বছর জালিয়াত আসলামের দরপত্র বাতিল হওয়ায় স্বস্তি ফিরেছে অন্যান্য ঠিকাদারদের মধ্যে। তারা এই ধান্দাবাজ আসলামের সহযোগীদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, জেলরোডের ঠিকাদার আসলাম হোসেন ও তার ছোট ভাই গোলাম রসুল ফরিদপুর কারাগারে খাবার সরবরাহের দরপত্রে অংশগ্রহণের সময় জাল পেঅর্ডার জমা দেন। যা প্রমাণিত হওয়ায় কারা মহাপরিদর্শকের পক্ষে অতিরিক্ত কারামহাপরিদর্শক কর্নেল শেখ সুজাউর রহমান স্বাক্ষরিত এক পত্রের মাধ্যমে আসলাম এন্টারপ্রাইজ ও মেসার্স গোলাম রসুলকে শাস্তি স্বরূপ এক বছরের জন্য কারা অধিদপ্তরের আওতাধীন সকল প্রতিষ্ঠানে টেন্ডার কার্যক্রমে অংশগ্রহণে নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

বিষয়টি গোপন করেই ধুরন্ধর আসলাম যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারের টেন্ডারে অংশ নেন। কিন্তু জালিয়াতির বিষয়টি জানাজানি হওয়ায় তার দরপত্র বাতিল করেছে কারাকর্তৃপক্ষ।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে দরপত্র মূল্যায়ন কমিটির সদস্য সচিব ও যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার ফোরকান ওয়াহিদ বলেন, সকল নিয়ম মেনেই দরপত্র মূল্যায়ন করে কারা হেডকোয়ার্টারে পাঠানো হয়েছে। কারা অভ্যন্তরীণ বিষয় হওয়ায় এর চেয়ে বেশি কিছুই বলা সম্ভব না বলে জানান তিনি। তাছাড়া, আসলামকে কারা অধিদপ্তর আগে থেকেই তাকে নিষিদ্ধ করায় তার দরপত্র মূল্যায়ন করার প্রশ্নই ওঠে না।

%d bloggers like this: